আন্দোলন করে সরকারকে নামানোর ক্ষমতা নেই বিএনপির: হানিফ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, ২০১৩ সাল থেকে বিএনপি এই সরকারকে ক্ষমতা থেকে নামাতে বহু চেষ্টা করেছে। ফলাফল মানুষ জানে। আন্দোলন করে এই সরকারকে ক্ষমতা থেকে টেনে হিঁচড়ে নামানোর ক্ষমতা বিএনপির তো নেইই, এ দেশে এমন কোন রাজনৈতিক শক্তিও নেই।

হানিফ বলেন, বিএনপির আন্দোলন তাদের নিজেদের কর্মী সমর্থকদের ও জনগণের সাথে ভাউতাবাজি ছাড়া আর কিছুই নয়। এখন যে কথাগুলো বলছে সেগুলোও ভাউতাবাজিরই অংশ।

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে হানিফ বলেন, যদি অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে চান তাহলে আগামী সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবার প্রস্তুতি নিন। সেই নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী এই সরকার ও এই নির্বাচন কমিশনের অধীনেই হবে। এ ক্ষেত্রে নির্বাচন আরও গ্রহণযোগ্য করার জন্য যদি কোন প্রস্তাব থাকে দিতে পারেন। কিন্তু সরকারকে বাদ দিয়ে অসাংবিধানিক প্রক্রিয়ায় এ দেশে আর কোন নির্বাচন হবে না।

সোমবার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া মোহিনী মোহন বিদ্যাপীঠ স্কুলের মাঠে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় পিলখানা হত্যাকাণ্ড নিয়ে হানিফ বলেন, ওইদিন বেগম জিয়ার গতিবিধি ও আচরণ সন্দেহজনক যা এই ঘটনার সাথে নিজেদের সম্পৃক্ততার ইঙ্গিত দেয়। মির্জা ফখরুলরা এখন উল্টা পাল্টা কথা বলেন, সেদিন থেকে দুদিন বেগম জিয়া কোথায় অন্তর্ধান ছিলেন তা খোলাসা করুন।

এসময় কুষ্টিয়ার কুমারখালী-খোকসা আসনের সংসদ সদস্য সেলিম আলতাফ জর্জ, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি, জেলা প্রশাসক সাইদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক কুষ্টিয়া সাংবাদিক ইউনিয়ন এর সভাপতি ও কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসি’র সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব’সহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।