1. maruf.jhenaidah85@gmail.com : maruf :
  2. info@jhenaidah-protidin.com : shishir :
  3. talha@gmail.com : talha : Md Abu Talha Rasel
  4. : :
৩রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ| ১৯শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ| বসন্তকাল| রবিবার| সকাল ১১:২৬|

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের বাসভবনে পাওয়া গেল সাদা পাউডার, পরীক্ষায় মিলল ‘কোকেন’

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ৫ জুলাই, ২০২৩
  • ১০২৫ Time View

ঘটনার সময় হোয়াইট হাউজে ছিলেন না প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন; পরিবার নিয়ে ক্যাম্প ডেভিডে ছুটিতে ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের বাসভবন হোয়াইট হাউসে সন্দেহজনক সাদা পাউডার মেলার পর বেঁধে গিয়েছিল হুলস্থুল, পরে জানা গেল, সেই পাউডার আসলে কোকেন।

মার্কিন সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, হোয়াইট হাউসের ওয়েস্ট উইংয়ে রোববার রাত পৌনে ৯টার দিকে সাদা পাউডার সদৃশ উপাদান খুঁজে পান সিক্রেট সার্ভিস এজেন্টরা। সঙ্গে সঙ্গে কিছু সময়ের জন্য হোয়াইট হাউসের ওই অংশ খালি করে ফেলা হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্রের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ওয়েস্ট উইংয়ে পাওয়া সাদা পাউডারকে ‘কোকেন’ বলে শনাক্ত করেছে ওয়াশিংটন ফায়ার ও জরুরি সেবা বিভাগ। তবে এর বিস্তারিত জানা যায়নি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন থাকেন হোয়াইট হাউসের এক্সিকিউটিভ ম্যানশনে। ওই ম্যানশনেরই লাগোয়া ওয়েস্ট উইং, যেখানে শত শত লোক নিয়মিত আসা-যাওয়া করেন। ওভাল অফিস, কেবিনেট রুম ও প্রেস এরিয়াও রয়েছে একই এলাকায়।

তবে ওই ঘটনার সময় প্রেসিডেন্ট বাইডেন তার বাসভবনে ছিলেন না। পরিবার নিয়ে ক্যাম্প ডেভিডে ছুটিতে ছিলেন তিনি।

সাদা পাউডার পাওয়ার খবরেই সেটি পরীক্ষা করতে হোয়াইট হাউসে ছুটে যান ফায়ার ও জরুরি সেবা দপ্তরের কর্মকর্তারা। পরে প্রাথমিকভাবে তারা নিশ্চিত হন, সেটি আসলে নিষিদ্ধ মাদক কোকেন।

প্রাথমিকভাবে পরীক্ষার পরই হোয়াইট হাউস ফের খুলে দেওয়া হয়। সেইসঙ্গে ওই পাউডার অধিকতর পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়।

সিক্রেট সার্ভিস আনুষ্ঠানিকভাবে বলছে, একটি ‘উপাদান’ তারা শনাক্ত ও পরীক্ষা করে। তবে সেই উপাদান আসলে কী, সেটি সুনির্দিষ্ট করে জানায়নি তারা।

আল-জাজিরা জানিয়েছে, প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তায় নিয়োজিত এই সংস্থাটি এক বিবৃতিতে বলেছে, ওই উপাদান অধিকতর পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এছাড়া হোয়াইট হাউসে সেটি কীভাবে ঢুকল, সে ব্যাপারেও তদন্ত চলছে।

সরকারি সূত্রের বরাতে অনেক সংবাদমাধ্যম ওই পাউডারকে ‘কোকেন’ হিসেবে বর্ণনা করেছে। ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, ওয়াশিংটন ডিসির ফায়ার বিভাগের বিপজ্জনক উপকরণ শনাক্ত টিমের একজন ফায়ারফাইটার ওই পাউডার পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করেছেন।

সংশ্লিষ্ট দুটি সূত্রের বরাতে সিএনএন জানিয়েছে, পাউডার পাওয়ার খবরের পর তাৎক্ষণিক পরীক্ষায় ওই উপাদানকে সম্ভাব্য কোকেন হিসেবে শনাক্ত করা হয়। যদিও এই পরীক্ষাই চূড়ান্ত নয়।

সূত্র দুটি বলছে, একটি জিপলক ব্যাগের ভেতরে সাদা পাউডারের মত উপাদান পাওয়া যায় হোয়াইট হাউসের ওয়েস্ট উইংয়ে।

সিক্রেট সার্ভিসের মুখপাত্র অ্যান্থনি গুগলিয়েলমি সিএনএনকে বলেন, ওয়েস্ট উইংয়ের একটি কর্মব্যস্ত জায়গায় ওই পাউডার পাওয়া যায়। ওয়াশিংটন ডিসির ফায়ার বিভাগ বিপজ্জনক উপাদান শনাক্ত ও নিয়ন্ত্রক দল ‘হ্যাজম্যাট টিম’ পাঠিয়েছে, যারা ওই উপাদানকে ‘বিপজ্জনক নয়’ বলে জানিয়েছে। সেইসঙ্গে হোয়াইট হাউসে সেটি কীভাবে প্রবেশ করল, সে ব্যাপারে একটি তদন্ত চলছে।

ওই উপাদান শনাক্ত হওয়ার দুদিন আগেই প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন শুক্রবার ক্যাম্প ডেভিডে পরিবার নিয়ে ছুটি কাটাতে যান। সেখান থেকে মঙ্গলবার তিনি হোয়াইট হাউসে ফেরেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021